ঢাবি উপাচার্যের সাথে স্টাডি ফোরামের সৌজন্য সাক্ষাৎ

বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সদস্যরা ৫ সেপ্টেম্বর রাত ৮.৩০ টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত উপাচার্য আআমস আরেফিন সিদ্দিকের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন ।  উপাচার্যের বাসভবনে বিডিএসএফ,ঢাবির সদস্যরা এই সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ।

বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তাদের কার্যক্রম সম্পর্কে উপাচার্যকে অবহিত করার জন্য সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন ।

উপাচার্যের সাথে প্রথমেই আলোচনা শুরু করেন বিডিএসএফ,ঢাবির সভাপতি সাগর বড়ুয়া ।

সাগর বলেন, বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম ২০১৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠা হওয়া একটি জ্ঞানভিত্তিক সামাজিক সংগঠন । জ্ঞানচর্চা ও জ্ঞান উৎপাদন স্টাডি ফোরামের মূল কাজ । ১৯৫০ সালের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল অর্জন ছিল শুধুমাত্র রাজনৈতিক আন্দোলনে  নেতৃত্ব দেয়া । বিশ্ববিদ্যালয় তার মূল কাজ জ্ঞান চর্চা ও জ্ঞান উৎপাদন  থেকে সরে এসেছে । বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম  এই মূল কাজটি করে যাচ্ছে ।

এই জন্য স্টাডি ফোরাম কিছু কাজ করে যাচ্ছে । দৈনিক আড্ডা, বুক টক ও আইডিয়া টক , সাপ্তাহিক লেকচার, টি-টুয়েন্টি( বই পড়া প্রতিযোগিতা) স্টাডি ক্যাম্প সহ নানা শিক্ষামূলক প্রোগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে ।

আগামি ১৪ ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম ২য় বর্ষপূর্তি ও শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসকে উপলক্ষ করে একটি আন্তর্জাতিক কনফারেন্সের আয়োজন করতে যাচ্ছে । এই বিষয়ে কে এন ঈপ্সিতা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন ।

বাংলাদেশ স্টাডি ফোরামের এই কার্যক্রমের প্রশংসা করেন উপাচার্য । তিনি বলেন ‘বর্তমান শিক্ষার্থীরা এই কাজ গুলোর সাথে যুক্ত থেকে আরো গতিশীল চিন্তার অধিকারী হতে পারে” ।  

বই পড়া নিয়ে স্টাডি ফোরামের বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়ে রওনক জাহান উপাচার্যকে অবহিত করেন । রওনক বলেন টি-টুয়েন্টি দুই মাসে বিশটি বই পড়ার প্রতিযোগিতা । বর্তমানে এটির ৩য় ব্যাচ প্রতিযোগিতা চলছে । বই পড়ার আরেকটি জনপ্রিয় প্রতিযোগিতা ওডিআই – ৪ মাসে ৫০ টি বই পড়ার প্রতিযোগিতা ।

উপাচার্য বলেন বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা চাকরি কেন্দ্রিক পড়ালেখা করছে যার ফলে নষ্ট হচ্ছে মেধা ও সময়ের । স্টাডি ফোরামের কার্যক্রম এই সংস্কৃতি থেকে শিক্ষার্থীদের বের করে নিয়ে আসতে পারে ।

স্টাডি ফোরামের কাজকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেক বিভাগ ও ইন্সিটিউটে ছড়িয়ে দিতে বলেন । সাইন্স ফ্যাকাল্টির বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের আরো বেশি পরিমাণে যুক্ত করতে বলেন । সাপ্তাহিক লেকচারে বিজ্ঞানভিত্তিক বিষয় আলোচনার উপর জোর দিতে বলেন । বর্তমান সময়ে জ্ঞানের পরিধি বাড়ানোর ক্ষেত্রে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখছে ।

আগামি কনফারেন্সের সফল আয়োজনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন । স্টাডি ফোরামের সকল কার্যক্রমের পাশে থাকার কথা বলে শেষ করেন আলোচনা ।

সবশেষে স্টাডি ফোরামের সদস্যরা উপাচার্য মহোদয়ের সাথে ছবি তুলে দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখলেন ।

 

 

 

 

 

 

 

 

Related Posts

About The Author

Add Comment