ক্ষমতাবানরা এড়িয়ে চলে এ সাতটি শব্দ

আপনার নিত্য ব্যবহৃত শব্দ আপনাকে নিয়ে অনেক কিছু বলে। শব্দ ক্ষমতা নির্দেশ করে। আবার ক্ষমতা শুধু পেশী শক্তি বা অন্যের উপর প্রভাবের বিষয়টিই নয় বরং নিজের উপর নিয়ন্ত্রণও বটে। যাদের আত্মনিয়ন্ত্রণ মজবুত তারা তাদের ব্যবহৃত শব্দ নিয়ে সচেতন। অনেক দুর্বল ব্যক্তি তার ভাষা ও শব্দ নিয়ে সচেতন নয়। এজন্য আজেবাঁজে ও দুর্বল শব্দের আধিক্য দেখা যায়। এর ফলে তারা যেমন নিজের উপর নিয়ন্ত্রণ হারানোর সাক্ষ্য দেয় তেমনি অন্যের উপর প্রভাবের অভাবের বিষয়টিও ধরা পড়ে। তাই সচেতন মানুষ, প্রভাবশালী মানুষ তার ভাষা ও শব্দের ব্যবহারে সতর্ক থাকে। কারণ তার মুখ থেকে আসা শব্দগুলো তার ব্যক্তিত্বকে জানান দেয়, তার চরিত্রকে উন্মোচন করে, তার অতীতের ভ্রমণটার সাক্ষ্য দেয় এবং বর্তমানে অবস্থান কোথায় এবং ভবিষ্যতে কোথায় যাবে সেটার ইঙ্গিত দেয়।

আমেরিকান দার্শনিক রাল্ফ ওয়াল্ডো এমার্সন বলেছিলেন একটা মানুষের সাথে দুই মিনিট কথা বলে তার মোটামুটি একটা পরিচয় দাড় করিয়ে ফেলতে পারেন। প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বরা আসলে এভাবেই অল্প সময়ে অনেক মানুষের সাথে পরিচিত হতে পারে, সম্পর্ক স্থাপন করতে পারে। আবার অল্প সময়ের ভেতরে অনেকের মধ্যেই দীর্ঘস্থায়ী প্রভাব রাখতে পারে।

শব্দের ক্ষমতা!

আমরা একজন ক্ষমতাবান ও দুর্বল লোককে তার ভাষা ও বহুল ব্যবহৃত শব্দগুলো দিয়ে ধরে ফেলতে পারি। তার মনস্তত্ত্ব আয়নার মতো ধরা পরে শব্দের জালে। বিশ্বখ্যাত ফোর্বস ম্যাগাজিনে সাতটি শব্দ নিয়ে একটি ফিচার প্রকাশ করেছে যেগুলো আসলে একজন দুর্বল ব্যক্তির সাক্ষ্য দেয়। এগুলো প্রভাবশালী ও ক্ষমতাবান ব্যক্তিরা এড়িয়ে চলেন। সেরকম সাতটি শব্দ হচ্ছে:

১. জাস্ট বা শুধু
এটা আপনি যা চান সেটাকে দুর্বল করে দেয়। মেইলে বা সরাসরি আলোচনায় এ শব্দটার ব্যবহার আপনার ব্যক্তিত্বকে দুর্বলভাবে উপস্থাপন করে।

২. ভেরি (খুব), অ্যাবসুল্যুটলি (পুরোপুরি) এবং টোটাল্লি (সম্পূর্ণভাবে)
এ ধরণের শব্দ আপনার বিশেষ্য বা নাউনের সাথে কোন ভ্যালু যোগ করেন। ‘আই এম ভেরি এক্সাইটেড’ না বলে শুধু ‘আই এম এক্সাইটেড’ বললেই হলো। আপনি যখন অল্প শব্দ ব্যবহার করেন তখন প্রতিটি শব্দই শক্তিশালী হয়ে উঠে।

৩. আমার মনে হয়…বা আই থিঙ্ক
এটা আপনার ব্যক্তিত্বকে দুর্বলভাবে উপস্থাপন করে। আপনি নিশ্চিত না হয়ে কোন বিষয়ে কথা বলতে চাচ্ছেন এটা খুবই দৃষ্টিকটু। আপনার ক্ষমতাকে দুর্বল করে দেয়। ক্ষমতাবানরা কোন বিষয়ে ইতস্তত করে বলে না, নিশ্চিতভাবে বলার চেষ্টা করে। তা না হলে চুপ থাকে।

৪. ‘আমি চেষ্টা করবো’ এবং ‘এটা নিয়ে ভেবো না’
এটা বলছে আপনি আপনার সক্ষমতা সম্পর্কে অনিশ্চিত। আপনি যদি কারো সামনে এটা বলেন সে ব্যক্তি আপনার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাস পাবে না। আবার ‘এটা নিয়ে ভেবো না’ এর মাধ্যমে অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস বা স্রেফ কথার কথা মনে হতে পারে। ক্ষমতাবানরা স্রেফ কথার কথা বলে না, কাজের কথা বলে।

৫. সরি বা দুঃখিত
সরি শব্দটি খুব কম ব্যবহার করেন ক্ষমতাবান লোকেরা। কারণ তারা সেটা বলার জায়গাতে নিজেদেরকে খুব কম সময় নিয়ে যান। যখন নিয়ন্ত্রণের বাইরে কোন কাজ হয়ে উঠে তখন ‘সরি’ বলতে পারেন। সরি বলার জায়গায় নিয়ে না নেওয়াতেই থাকতে চান ক্ষমতাবানরা।

৬. যেমন, যাই হউক, ইত্যাদি..
এগুলো যত কম সম্ভব ব্যবহার করুন। এগুলো খুবই সাধারণ শব্দ এবং সাধারণ মানুষেরা হরহামেশাই ব্যবহার করে। কিন্তু ক্ষমতাবানরা এগুলো ব্যবহার করার ক্ষেত্রে সতর্ক।

৭. ‘আসলে’ ও ‘অবশ্যই’
এটা বুঝাতে পারে আপনি যার সাথে কথা বলছেন তিনি আপনার কথা বুঝতে পারেনি। অন্য সম্পর্কে এরকম ধারণা রাখা তাদেরকে হতাশ করতে পারে, আত্মবিশ্বাসে আঘাত দিতে পারে। এবং আপনি যেহেতু অন্যকে সম্মান করছেন না আপনার শব্দের মাধ্যমে অন্যরাও আপনাকে অসম্মান করতে পারে।

সঠিক শব্দ বাছাই না করতে পারলে আপনার ব্যক্তিত্ব ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে এবং আপনি যা চান সেটা অর্জনে বাধা প্রদান করতে পারে। শব্দের সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে নিজেকে ক্ষমতায়িত করার সাথে সাথে জীবনে এগিয়ে থাকতে পারেন।

সূত্র: ফোর্বস

Related Posts

About The Author

Add Comment