শিকলভাঙার গান ২: পৌরুষ কাহাকে বলে?

ওগো পুরুষ এ তোমার কেমন পুরুষালি

যে তা হয় ফালি ফালি

যদি কোন নারী না করে স্বীকার

তবে কি তা তাবৎ নারীনির্ভর

এ তোমার কেমন বিকার?

 

ওগো পুরুষ

নারীর না-য়ে যে পৌরুষ গলে যায়

ফেল ছুঁড়ে তা পুরীষে নির্দ্বিধায়

ওগো পুরুষ

নারীর হ্যাঁ-তে পৌরুষ বাড়ে না,

নারীর না-তে পৌরুষ কমে না।

 

যে করে দাবি মর্দামি সবলে,

জানে তার অন্তর্যামী, নাহলে

হারাবে সে তার সমূহ সম্মান

নিজেতে নেই তার নিজেরই ইমান

তাই তড়পায় বৃথা আস্ফালনে

খোঁজে পৌরুষ ধর্ষণে

            চাপাতির সনে

                            ধর্মতলে

জানে না সে ইহাকে কাপৌরুষ বলে

 

পৌরুষ  সবুরে সংযমে

পৌরুষ ত্যাগে স্থৈর্যে

পৌরুষ পরকে শাসনে নয়

পৌরুষ আত্ম অনুশাসনে

পৌরুষ রিপুতাড়নায় নয়

পৌরুষ রিপুকে বাধনে

পৌরুষ মুক্তচিত্তে মুক্তির গানে

 

ওগো পুরুষ তুমি বিশ্বাসের বেলুন ফুলিয়ে তোমার পৌরুষ আর কত দেখাবা?

তুমি রইতে জানো না তুমি সইতে জানো না

তোমার তর সয় না

তাই তর তর করে হর হর করে

তোমার জেনানার আগে

ছেড়ে দাও তুমি তোমার সারাৎসার

 

তখন করো দাবি তোমার জেনানা কদাকার

আর করো দাবি তোমার জেনানার বিকার

তখন লাগাও জেনানার যোনিতে লাগাম

আর কাফনে লুকাও জেনানা জেসম

 

বলো তো কি হবে যোনিতে লাগিয়ে লাগাম?

বলো কি হবে কাফনে লুকিয়ে জেনানা জেসম?

পারো তো সাধো মনেতে সংযম

পারো তো সাধো সোনায় সংযম 

সংযম বিনে কেমনে পৌঁছাবে পৌরুষের মোকাম?

 

আর কেনই বা তুমি ভাবো পৌরুষ মানে কাম

কাম তো একটা সমবায় কলা একটা সমবায় ক্রীড়া

দেখাতে চাও কামে পটিমা, করো কাম চর্চা ও চর্যা

জানো নিজেকে, জানো তোমার অংশীদারকে

 

ওগো পুরুষ, 

যা তোমার অধিকারে না তা ছাড়তে শেখো

যতই করো তুমি দাবি নারীর মালিকানা

তুমি আদৌ কোন নারীর মালিক না

 

একজন নারী একজন রক্তমাংসের স্বতন্ত্র মানুষ

সে তোমার সম্পত্তি নয়— নয় তোমার সম্পদ

তারও আছে চেতন অচেতন অবচেতন তোমারি মতন

আছে কামনা যাতনা বেদনা তোমারি মতন

 

পুরুষ তুমিও একজন রক্তমাংসের মানুষ

ভড়ং ধরে লাভ নেই

অহং ফলায়ে লাভ নেই

নও তুমি স্বামী, নও তুমি প্রভু

প্রথা ফলায়ে লাভ নেই

প্রথা ফলায় সে তো কুপুরুষ

স্বামী মারায় সে তো কাপুরুষ

 

পুরুষ তুমি জীবনসংসারে নারীর অংশীদার

এবং নারী তোমার অংশীদার

সমঝোতা করে নাও তোমার অংশের ভার

 

পরিশেষে স্বীকার্য যে

পৌরুষ বলে ট্যানজিবল কিছু নেই

পৌরুষ বলে সাকার কিছু নেই

পৌরুষ একটা ভাবাদর্শ মাত্র

ভাবের জগতে পৌরুষ যেমন চাবে তেমন হবে

অন্যায় না চেয়ে ন্যায় চাও, সংঘাত না চেয়ে শান্তি চাও, সম্প্রীতি চাও

বৃথা বল ফলায়ে কুপুরুষ হোয়েও না, কাপুরুষ হোয়েও না

ত্যাগে সবুরে সংযমে মুক্তচিত্তের সুপুরুষ হও

 

সবিতা শারমিন,

নারীবাদী সাহিত্যিক,  সমাজ-রাজনীতি-ও-জনসংস্কৃতি বিষয়ক গবেষক।

যোগাযোগে [email protected]

২৪ পৌষ ১৪২৩

 

আরো পড়ুন: “শিকলভাঙার গান ১: পুরুষতন্ত্রের বন্দীশালায়

Related Posts

About The Author

Add Comment