প্রতীক্ষার প্রহর

ফারাক্কা বাঁধ

ফারাক্কা বাঁধ

বন্ধু বলেই কি তুমি

কেড়ে নাও মোর ভূমি

ভেঙ্গে ফেলো আমার সমতল

তুমি তো বন্ধু সেই অবিকল।

আমার চিরচেনা আজাজিল

আমার জন্মসূত্রে হয়েছে নাজিল

সত্যিই কি তুমি বন্ধু!

নাকি তুমি অজেয় সিন্ধু?

তুমি কি চূড়া- শীর্ষ হিমালয়?

তুমি কি মহা প্রলয়?

তুমি কি বিশূভিয়াসের অগ্নিগিরি?

ভেঙ্গে কর চুরমার মোর ঘরবাড়ি।

বন্ধু তুমি কেন কর আমারে অবহেলা

বার বার ভাসাও প্রেম-সখিনার ভেলা

ভেঙ্গে ফেলো শত লাইলীর ঘর

কেড়ে নাও অনেক শিরিনের বর

গরু ছাগল হাঁস মুরগি ছাড় না কোন কিছু।

মিথ্যে! আমি বন্ধু বলে ঘুরছি তোমার পিছু!

আসলেই তুমি কি অভিশাপ!

আমার শত জনমের পাপ!

নাকি তুমি ভোরের শিশির শবনম

চাও কেবলই প্রেমিকের প্রণম

আমি তো প্রণম করে চলেছি প্রতিদিন

তবুও তুমি কেন এত হীন অবনত আমার মস্তক!

আমি তো নতশির।

এ কোন আমি! আমিতো ছিলাম উচ্চ শির

আমি তো নও জোয়ান – ঈসা খাঁর

শত্রুকে করতে পারি ছারখার।

আমি বীর বিপ্লবি বখতিয়ার

এখনও আমার তলোয়ার

ঝলসে উঠে নদীয়ার আকাশে

আমার অশ্ব- ধূলা ভাসে বাতাসে

আমার ক্ষুরধার তরবারির ঝনঝনানি

শত্রুর হৃদয় কাঁপানো অশ্বধ্বনি।

শত্রুর প্রাসাদে নিভে দেয় হাজার

সূর্যের আলো বন্ধু!

আর কতদিন জ্বালাবে- প্রদীপ-আলো

আমি নব্য জগতের উত্তরাধিকার

আমি আলী হায়দারের জুলফিকার

আমি উমরের হস্ত- কৃপাণ

আমি মহা বিজয়ের সোপাণ।

আমি খালিদ, আমি মহাবীর

আমি হই না কখনও নতশির।

আমি জয়নাব – আমি যুদ্ধবালা

আমি জয় করেছি কারবালা

আমি হোসাইন – ঐ আমার কাফেলা

এখনও ছুটে চলে সারাটি বেলা

এখনও চারিদিকে এজিদের ঘোড়া

এখনও বসিয়েছে কড়াঁ পাহারা

তাইতো কখনও আমি বিকট শব্দে হাসি!

তোমরা কি আজও জাগবে না মদীনাবাসি?

বন্ধু! আমি হারিয়েছি বার বার

আমার স্বপ্নখাব ধুঁকে ধুঁকে মরছি আজো – এখনও মিলেনি জবাব

যেদিন ভাঙ্গবে আমার প্রতিক্ষার প্রহর

জানিনা! হয়তো বয়ে যাবে রক্ত – নহর।

কবি : আবু মুসা মোঃ আরিফ বিল্লাহ

Related Posts

About The Author

Add Comment