বই হচ্ছে মানুষের জন্য একটি শ্রেষ্ঠ সফটওয়ার!

সফটওয়ার যেমন কম্পিউটার, ল্যাপটপ বা স্মার্ট ফোনের কাজের প্রকৃতি পাল্টে দেয় তেমনি একটা ভালো বইও মানুষের দেখার দৃষ্টি, ভাবনার পদ্ধতি পাল্টে দেয়। তাই আমার কাছে মনে হয় বই হচ্ছে মানুষের জন্য সেরা সফটওয়ার।

তবে এক্ষত্রে ভাইরাস সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে। যেমন ভালো সফটওয়ারের মত বই আছে তেমনি ভয়ানক ভাইরাস রূপী বইও আছে। এখন এই বাছাই করার প্রক্রিয়াটা অনেক জটিল। কিছু কিছু ভাইরাস কম্পিউটারে কেমনে কেমনে বা অজান্তেই চলে আসে। এখন এন্টি ভাইরাস ছাড়া উপায় নেই। ভাইরাসরূপী বইকে মোকাবিলা করার জন্য এন্টিভাইরাসরূপী বইও আছে!

এখন সকল ধরণের ভাইরাস মোকবিলার জন্য এন্টি ভাইরাস ইন্সটল বা প্রতিস্থাপন করে রাখতে হবে। খুব মজার বিষয় কারো যদি ভালো বই পড়ার অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে তার পাঠক রুচিতে এমনিই এন্টি ভাইরাস ইন্সটল হয়ে থাকে। এখন তাকে নাড়িয়ে দেয়া কোন ভাইরাসের পক্ষে সম্ভব নয়। আর একেকটা সেরা বই পড়া হচ্ছে একেকটা সফটওয়ার ইন্সটল করা; তার মানে জগতকে একেকবার একেকটি দৃষ্টিতে দেখার সক্ষমতা অর্জন করা।

এখন বই কি? সেটা কি কালো অক্ষরের অসংখ্য পৃষ্ঠাবিশিষ্ট একটি পাণ্ডুলিপি? বা অনেকগুলো পৃষ্ঠাকে একত্রিত করলেই কি সেটা বই হয়ে যাবে? আমার কাছে সেরা চিন্তা, মানব সমাজের জন্য কল্যানকর চিন্তা, মানব সমাজের সার্থক প্রতিকৃতি যে বইয়ে পাওয়া যায় সেটাই আসলে ভালো বই যেটা আসলে কারো সফটওয়ার হওয়ার গৌরব অর্জন করতে পারে, যার আলোকে জীবনকে সাজালে পস্তানোর বা পতনের কোন সম্ভাবনা নাই।

বই আসলে একটি জড় বস্তু যেখানে জীবন্ত চিন্তা থাকে। চিন্তাটা গুরুত্বপূর্ণ। মহৎ চিন্তার কারণে বইটা গুরুত্ব পেয়ে থাকে, তা না হলে বইটির কোন মূল্য নেই একটি জড়বস্তু হওয়া ছাড়া।

Related Posts

About The Author

Add Comment