বুদ্ধিজীবী দিবস ও বিডিএসএফ- এর জন্মদিন

আজ বুদ্ধিজীবী দিবস।
সেই স্মরণে বুদ্ধিবৃত্তিক সমাজ গঠনে বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম এর পথচলা শুরু এইদিনেই।
১৪ ডিসেম্বর ২০১৬ BDSF এর ২য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। বয়সে শিশু সংগঠনটি অনেক বয়ঃপ্রাপ্ত কিংবা তরুণ-যুবা সংগঠনের চেয়ে সাহসিকতায় অনেক অনেক এগিয়ে আমি মনেকরি। কেননা এই সদ্য জন্ম লাভ করা সংগঠনটি হাতে নিয়েছে অনেক বড় চ্যালেঞ্জ, মাথায় যে তার বুদ্ধিবৃত্তিক জাগ্রত সমাজ গঠনের দায়িত্ব, তাই সে সামনা করে যাচ্ছে নতুন সব অভিজ্ঞতার, দায়িত্ব বেড়ে যাচ্ছে দ্বিগুন হারে।

নিয়মিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর ডাকসুতে পাবলিক লেকচার ছাড়াও, প্রতিদিনের আলোচনায় যুক্ত হচ্ছেন জ্ঞানচর্চায় ব্রতী নতুন মুখ। ঢাকার বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় এর ছাত্র – শিক্ষক অসাধারণ মিলনমেলা আলোচনা যজ্ঞ ছাড়িয়ে এরই মধ্যে এই শিশু সংগঠনটির শাখা তৈরি হয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সরকারি তিতুমীর কলেজে।

নিয়মিত পাবলিক লেকচার অনুষ্ঠিত হচ্ছে ঢাকার বাইরের কেন্দ্রগুলোতেও। লার্নিং ফ্রম শেয়ারিং- নীতিতে আস্থা রেখে স্টাডি ফোরামের বন্ধুরা জানা বিষয় গুলো বন্ধুদের জানাতে অস্থির থাকেন সর্বদা। তাইতো প্রায় প্রতিদিনই ছুটে আসেন বুদ্ধিবৃত্তিক সমাজ গঠনের তাড়নায়।

ঘোড়ায় চড়ে পুরাণ ঢাকা বিউটি বোডিং আহসান মঞ্জিল ভ্রমণ(!), রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, ইবলিশ চত্বর ছাত্র শিক্ষক উন্মুক্ত আলোচনা, একত্রে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এ পাবলিক লেকচার এ অংশ নেয়া, কিংবা একটি সিনেমা উপভোগের পর পরিচালকের কাছ থেকে এর গল্প শুনতে চাওয়া, এ শুধু আত্মতৃপ্তি বা শুধুই ভ্রমণ নয়, বরং তা মনকে কৌতূহলী করে তোলে। জানার আগ্রহ যেমন বাড়ায় তেমনি বন্ধু বা কমরেডদের মধ্যে সখ্যতা বাড়িয়ে তোলে শতগুণে! এ প্রাণের সংগঠনের জন্মদিনের, আমি এঁর শত হাজার বছর স্বার্থক দীর্ঘায়ু কামনা করি।

লেখক : শাফকাত আলম আঁখি

Related Posts

About The Author

Add Comment