রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বিডিএসএফ কুবি’র আলোচনা অনুষ্ঠান

hiবাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টারের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো “রোহিঙ্গা গনহত্যা ও জাতিগত নিধন : বাংলাদেশের করণীয় ” শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। বাংলাদেশের চলমান সংকট ও এর সমাধান প্রকল্পে এটি ছিলো বিডিএসএফ কুবি’র ৪৫ তম পাবলিক লেকচার। অনুষ্ঠিত এই পাবলিক লেকচারে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের  সহকারী অধ্যাপক আকবর হোসাইন ও নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এন এম রবিউল আউয়াল এবং লোকপ্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. মাসুদা কামাল । ড. মাসুদা কামালের সভাপতিত্বে প্রাণবন্ত এ পাবলিক লেকচার শুরু হয় শতাব্দী জুবায়েরের স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে যেখানে তিনি বিডিএসএফ, কুবির দীর্ঘ্য তিন বছরের পথচলা নিয়ে কথা বলেন।

বক্তব্য রাখছেন প্রফেসর আকবর হোসেইন

এরপর মঞ্চে আসেন ইংরেজি বিভাগ কুবির সহযোগী অধ্যাপক আকবর হোসাইন। তিনি তার রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে ঘুরে আসা ও তাদের জন্য ত্রাণ নিয়ে যাওয়ার অভিজ্ঞতার আলোকে রোহিঙ্গাদের অবর্ননীয় দুঃখ দুর্দশার চিত্র তুলে ধরেন। শরনার্থী ক্যাম্পে অবস্থান কালে ও রোহিঙ্গাদের জন্য কাজ করার সময় তিনি যে ‘ র রিয়েলিটি ‘ উপলব্ধি করেছেন, যেসব প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছেন সেগুলোও তার বক্তব্যে ওঠে আসে। ড্রয়িংরুম কালচারের মধ্যে থেকেও কিভাবে মানবতার সেবা করা যায়, সাম্প্রদায়িক চিন্তা থেকে বের হয়ে ভার্বাল টেকনিক খোজা ও মানবিকতার দিকটিও তিনি তুলে ধরেন। সর্বোপরি রোহিঙ্গাদের প্রতি উদার দৃষ্টিভঙ্গি স্থাপন ও এ সমস্যা থেকে উত্তরণের উপায় খোজা ছিল অধ্যাপক আকবর হোসাইনের বক্তব্যের মূল বিষয়বস্তু।

উপস্থিত শ্রোতাদের একাংশ

রোহিঙ্গা বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্পৃক্ততা ও তাদের অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ নিয়ে এরপর  কথা বলেন নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রবিউল আউয়াল। তিনি তাঁর বক্তব্যে সাংবিধানিক দিক দিয়ে বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের অবস্থান ও অন্যান্য ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর অবস্থান কেমন তা তুলে ধরেন। রোহিঙ্গাদের প্রতি বাংলাদেশের অবস্থান কেমন হওয়া উচিত, এ ইস্যুতে আমাদের বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্রগুলোর বর্তমান অবস্থা কেমন, কেনই বা চীন ও রাশিয়া রোহিঙ্গাদের পাশে দাড়াচ্ছেনা, ভারতই বা কেনো দ্বৈত আচরন করছে সে বিষয়গুলো তুলে ধরেন। ফ্রয়েডের উদ্বৃতি দিয়ে তিনি বলেন নিজেকে বুঝতে হবে, নিজের রাষ্ট্রকে বুঝতে হবে, কখনো কখনো মানবিকতার চেয়ে কুটনৈতিক কৌশলকে জোর দিতে হয়। “পুষ্প আপনার জন্য ফোটেনা ” কাজেই রাষ্ট্রের কল্যানের কথা চিন্তা করে সরকারের মানবিক দিকের পাশাপাশি কুটনৈতিক দিকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে এ সমস্যার সমাধান সম্ভব বলে তিনি উল্লেখ করেন। সর্বোপরি রোহিঙ্গাদের অতীত বর্তমান অবস্থা ও তাদের দুর্দশা লাঘবে ভবিষ্যতের পরিকল্পনা কেমন হওয়া উচিত সে বিষয়ে তাঁর দূরদর্শী পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন।

বক্তব্য রাখছেন এন এম রবিউল আউয়াল চৌধুরী

আলোচনা অনুষ্ঠানের শেষ বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন লোক প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. মাসুদা কামাল। তিনি তার বক্তব্যে রোহিঙ্গা সমস্যাকে Geo-Political Economic সমস্যা হিসেবে আখ্যা দিয়ে Functional Knowledge ও Substantial Knowledge এর আলোকে সমাধান করতে মানবিক, কুটনৈতিক দিকে গুরুত্ব দেয়ার পাশাপাশি বৈশ্বিক দৃষ্টি আকর্ষন ও জনপ্রিয়তা তুলে ধরার বিষয়টিকেও আমলে নেয়ার কথা বলেন।

বক্তব্য রাখছেন অধ্যাপক ড. মাসুদা কামাল

সর্বশেষ আয়োজন প্রশ্নোত্তর পর্বে জ্ঞান পিপাসু শিক্ষার্থীবৃন্দের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন আলোচকবৃন্দ। প্রশ্নোত্তরের মধ্য দিয়েই শেষ হয় প্রাণবন্ত এ অনুষ্ঠান।

লেখক : এমদাদুল এইচ সরকার

শিক্ষার্থী, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

Related Posts

About The Author

Add Comment