স্টাডি ক্যাম্প ২০১৫: রাজশাহী- Asif Inzamam

BDSF আয়োজিত “Study camp-2015: Rajshahi” অংশগ্রহনের অভিজ্ঞতা নিয়ে সবাইকে লেখার আহ্বান জানান হয়েছে। তবে আমার মনে হয় কাজটি খুব সহজ হবে না। হৃদয়ের গভীর প্রান্তে যে অনুভূতি জন্ম নেয় তাকে ভাষায় প্রকাশ করা রীতিমত সাধকের কাজ।“Study camp-2015: Rajshahi”র অনিুভূতিও এরকম গভীর কিছু। তাই শুরুতেই ক্ষমা চেয়ে শুরু করছি কারণ কাঁচা সংবাদ প্রতিবেদকের মত ঘটনাবিবরণী লেখার বেশি যোগ্যতা আমার নেই। আমি রাজশাহীর ছেলে। মোলায়েম এই শহরের আলো, বাতাস, জল, কেঁচো , কুকুর, মানুষের মাঝে আমি বড় হয়েছি।এই শহরের অলি-গলি, প্রান্তর; লু-হাওয়ায় উত্তপ্ত রাজপথ খুবলে খুবলে দেখেছি। কিন্তু এবার যখন ৩৪ জোড়া কৌতূহলী চোখের মুগ্ধতা, আগ্রহ আর বিস্ময়ের মধ্যে দিয়ে দেখলাম তখন অচেনা এক রাজশাহী আমার চোখে ধরা পড়ল। এই রাজশাহী এই শহরের ছেলে হিসেবে আমাকে অহংকারী করে তুলল। Study camp-এ গিয়েছিলাম বিনয়ী আমি। ফিরে এসেছি অহংকারী আমি।

The roof of Asif Inzamam house

The roof of Asif Inzamam’s house

সূচনা Study camp শুরু হয় Mizanur Rahman (মিজান ভাই)-এর রাজশাহী নিয়ে একটি সংক্ষিপ্ত পরিচিতির মধ্যে দিয়ে। কি ছিল না এই পরিচিতিতে। রাজশাহীর ইতিহাস, লোকাচার, অর্থনৈতিক ব্যবস্থা, দর্শনীয় প্রাকৃতিক দৃশ্য, প্রাচীন ও আধুনিক স্থাপত্য, রাজশাহীর সুরেলা ভাষার ব্যুৎপত্তিগত ইতিহাস মাত্র ১০ মিনিটের মধ্যে তুলে ধরে এই যাত্রার এক অসাধারণ সূচনা করলেন তিনি। তারপর পুরো দল রওয়ানা দেয় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে। শৈল্পিক সৌন্দর্য্যে ভরপুর এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সৌন্দর্য্য উপভোগের পর এই বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি খোলা মাঠে অনুষ্ঠিত হয় Study camp এর প্রথম সেশন।

Asif Inzamam speaking about Cold War

Asif Inzamam speaking about Cold War

সেশনে BDSF এর কমরেডরা ছাড়াও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও শিক্ষক অংশগ্রহন করেন। সেশন শুরু হয় সবার পরিচিতি প্রদানের মধ্যে দিয়ে। কিন্তু এই পরিচিতি কোন সাধারণ পরিচিতি পর্ব ছিল না। নিজের পরিচয় প্রদানের পাশাপাশি সবাইকে নিজের Area of Interest বলতে বলা হয়। আর তা বলতে গিয়ে এই সামান্য পরিচিতি পর্ব হয়ে ওঠে সামষ্টিক ভাবনার বহি:প্রকাশের মঞ্চ। বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চায় তরুণ সমাজের অনাগ্রহ, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর দায়বদ্ধতা, জ্ঞানচর্চায় কেন্দ্রিকতা ও বিকেন্দ্রিকতার খারাপ ভালো, সাহিত্যচর্চার গুরুত্ব, বর্তমানের শিশুদের রোবটিক জীবনযাত্রার মত নানা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উঠে আসে এই পরিচিতি পর্বে। শুরতেই BDSF তার অনন্যতা তুলে ধরতে সক্ষম হয়।

Sabidin Ibrahim talking about BDSF

Sabidin Ibrahim talking about BDSF

তারপর Sabidin Ibrahim BDSF এর পরিচিতি তুলে ধরেন। তার বক্তব্যে তিনি সমাজ গঠনে ও পরিচালনায় পাঠকের ভূমিকা আলোচনা করেন। বই পাঠকের হাত ধরে কিভাবে জড় থেকে জীবন্ত হয়ে ওঠে তার ব্যাখ্যা দেন। এছাড়াও মনে করিয়ে দেন যে Study মানেই শুধু বই পড়া নয়, বিশ্বকে দেখা Study-র সবচেয়ে প্রধান রূপ। সেশনে প্রথম বক্তা হিসেবে আমি (আসিফ ইনজামাম) বক্তব্য রাখি। (বি:দ্র: আয়োজকের ভিমরত আর কি। আমাকে আবার জ্ঞানী ভেবে ভ্রমে পড়বেন না) Cold war কিভাবে মহাকাশ ও জেনেটিক গবেষণায় প্রভাব রাখে সেই বিষয়ে ধারণা দেয়ার চেষ্টা করা হয় এই বক্তব্যে। বক্তব্য শেষে কমরেডগণ তাদের প্রতিক্রিয়ায় Cold war এর পটভূমি, এবং এই ঐতিহাসিক দ্বন্দ্ব কিভাবে প্রযুক্তির বিকাশের সাহায্য করেছে। এক কমরেড Cold war এর সময় কিভাবে আন্তর্জাতিক অস্ত্র আইন লংঘিত হয়েছে তা তুলে ধরেন।

Mizanur Rahman speaking about Source of Knowledge

Mizanur Rahman speaking about Source of Knowledge

অত:পর পুনরায় মিজান ভাই। তিনি জ্ঞানের উৎস নিয়ে যে বক্তব্য রাখেন তা তরুণ জ্ঞানপিপাসুদের জন্য অমূল্য পাথেয় হতে পারে। আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে এটি সমস্ত Study camp-র সবচেয়ে Motivating এবং Directive বক্তব্য ছিল। বক্তব্যের পর পরই তরুণ কমরেডদের উচ্ছাস-উদ্দীপ্ত প্রতিক্রিয়া সেদিকেই ইঙ্গিত দেয়। এত তারুণ্যের সমাবেশ যেখানে সেখানে শুধু গুরুগম্ভীর আলোচনা হবে এটা ভাবাও অন্যায়।সানজিদা আক্তার প্রিয়াংকার লালনগীতি, Sumaiya Suma কবিতাও তাই এই সেশনের অন্যতম আকর্ষণ ছিল।

Bokhtiar Ahmed, Anthropology, Rajshahi University

Bokhtiar Ahmed, Anthropology, Rajshahi University

এর পর নৃবিজ্ঞানী ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের Anthropology বিভাগের শিক্ষক বখতিয়ার আহমেদ এক অসাধারণ বক্তৃতার মাধ্যমে BDSF-এর কমরেডদের আলোকিত করেন। তার বক্তব্যে তিনি বাংলাদেশে নৃবিজ্ঞান চর্চার হালহকিকত, জ্ঞানচর্চার বিকাশে প্রযুক্তির প্রভাব, ইতিহাসের পরিক্রমায় সমাজপরিবর্তন সত্ত্বেও সমাজে কিভাবে পুরোন সময়ের চিহ্ন থেকে যায় এবং চতুর দৃষ্টি তা কিভাবে খুজেঁ পেতে পারে তা সম্পর্কে ধারণা দেন। সেশন শেষে “Study camp-2015: Rajshahi”-র বুক পার্টনার “আদর্শ”-এর পক্ষ থেকে বখতিয়ার স্যারকে একগুচ্ছ বই উপহার দেয়া হয়। এছাড়াও “Study camp-র T-shirt ও BDSF-র পরিচিতি তুলে দেওয়া হয় তার হাতে। একই ভাবে বই, T-shirt ও BDSF-র পরিচিতি তুলে দেওয়া হয় সেশনে উপস্থিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধুদের হাতে।

Poetry Recital of Abu Prantor

Poetry Recital of Abu Prantor

রাজশাহী কলেজে Camp-এর দ্বিতীয় সেশন অনুষ্ঠিত হয় রাজশাহী কলেজের উন্মুক্ত প্রান্তরে। সেখানে আশরাফ শক্তিমান বর্তমান নিয়ে একটি শক্তিশালী বক্তব্য রাখে। পাশাপাশি আহাদের মন প্রকৌশল বিষয়ক বক্তব্য নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করার কিছু গুরুত্বপূর্ণ উপায় নিয়ে আলোচনা করে। Rownok Jahan কৌতুক কবিতা ও আখিঁর কৌতুক পরিবেশনের সাথে প্রান্তের বজ্রমাখা কন্ঠে জ্বালাময়ী কবিতা ও প্রিয়াংকার গানের বেদনাবিধূর সুর আবেগে আপ্লুত করে সবাইকে। তবে এই সেশনের মূল অর্জন Saimum Reza Piash “Dichotomy Between Freedom of Expression and Right to Privacy: Relation and Responsibilities of the State and Citizen” বিষয়ক বক্তব্য। সার্বভেৌমত্বের ধারণার উৎপত্তি দিয়ে বক্তব্য শুরু হয়। তারপর ধীরে ধীরে আমাদের সংবিধান কিভাবে আমাদের সার্বভৌমত্ব কেড়ে নিয়ে তা প্রধানমন্ত্রীর কাছে কেন্দ্রীভূত করেছে তা জলের মত পরিষ্কার করে দেন তিনি। তার বক্তব্যে যে মৌলিকত্ব ছিল তা প্রশংসার দাবিদার। তার বক্তব্যে সাংবিধানিক অধিকার ও সার্বভৌমত্বের ধারণা নিয়ে আলোচনার অনেক মূল্যবান রসদ পাওয়া গেছে বলে আমার বিশ্বাস।

Mahbub Siddique

Mahbub Siddique

এর মধ্যে আমাদের সঙ্গে যোগ দেন শ্রদ্ধেয় মাহবুব ভাই (ষাটোর্ধ্ব একজন মানুষকে ভাই সম্বোধন করা হলে তিনি যে চিরতরুণ তা আর বলে দেওয়া লাগে না)। তিনি একজন স্বতন্ত্র গবেষক। তিনি রাজশাহী কলেজের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস এবং মুক্তিযুদ্ধে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবদান নিয়ে আলোচনা করেন। পদ্মার মায়াবী চর অত:পর নৌকায় করে পদ্মা পাড়ি দিয়ে পদ্মার চরে (প্রাচীন সাহেবগঞ্জ) আসি সবাই।

ASM Younus telling the history of Padma

ASM Younus telling the history of Padma

এখানে পদ্মা নদীর ইতিবৃত্ত নিয়ে এক অসামান্য বক্তব্য রাখেন শ্রদ্ধেয় Asm Younus (ইউনূস ভাই)। পদ্মা ও গঙ্গা নামের গোলকধাঁধা সমাধানের মধ্যে দিয়ে তার আলোচনা শুরু হয়।গোয়বলন্দ ঘাটের আগের অংশ যে গঙ্গা নামে স্বীকৃত তা কে জানত এর আগে? তারপর পদ্মার করুণ চিত্র সবার সামনে তুলে ধরেন তিনি। পদ্মার শাখা নদীগুলোর দূরাবস্থা শুনে শরীর শিউরে ওঠে। ফারাক্কা ইস্যুই যে পদ্মার একমাত্র সমস্যা নয় এবং এরকম শত শত ভারতীয় বাঁধ কিভাবে পদ্মার মৃত্যু পরোয়ানা নিয়ে ভারতজুড়ে দাঁড়িয়ে আছে সেই ভয়ানক তথ্য পাই তার বক্তব্য থেকে। পদ্মার সাথে উত্তরাঞ্চলের সামাজিক ও অর্থনৈতিক ভবিষ্যৎ কিভাবে জড়িত তার রূপরেখাও পাওয়া গেল। সব মিলিয়ে Study camp এর সবচেয়ে Informative এবং Emotional Lecture ছিল এটা। এরপর মাহমুদ ভাই রাজশাহীর ইইতহাস বলতে গিয়ে আমাদের নিয়ে যান সুদূর অতীতে। সেখানে যেন নিজ চোখে দেখলাম শাহ মখদুম রূপোশ এর আগমন, সাহেবগঞ্জে ইউরোপীয়দের কুঠি-বসতি স্থাপন। সেখানে সাহেবের শিকারী বুলেটের আঘাতে বুনো মোষের ধরাশায়ী হওয়া দেখলাম, দেখলাম রাণী হেমন্তকুমারীর অবদানে এই মোলায়েম শহরের বিস্তৃতি। চেনা রাজশাহীর অচেনা রূপ দেখলাম। প্রকৃতির স্নিগ্ধতায়, ডুবন্ত সূর্যে, জ্ঞানের বিপুলতায় এক অসাধারণ Session হল। সম্ভবত Study camp এর Best session.

লেখক : আসিফ ইনজামাম

Related Posts

About The Author

2 Comments

Add Comment

Leave a Reply to solverlovegod Cancel reply