বাংলাদেশের চোখে বিশ্ব দেখি স্লোগানকে সামনে রেখে একটি আত্মনির্ভরশীল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন নিয়ে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম (বিডিএসএফ)। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সহ ডজনখানেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, তরুন চিন্তক গবেষকের কাছে খুবই পছন্দের প্রতিষ্ঠান হিসেবে দাড়িয়েছে বিডিএসএফ। প্রায় প্রতিদিন কোন না কোন কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত থেকে স্টাডি ফোরামের বন্ধুরা নিজেদেরকে শানিত করার সাথে সাথে একটি সমৃদ্ধ, স্বয়ংসম্পূর্ণ ও শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখাচ্ছে।

বাংলাদেশের অতীত পাঠ, পুনর্পাঠ, বর্তমানকে ধারণ, অনুধাবন এবং বর্তমান সমস্যা পাঠ ও সমাধান অনুসন্ধান ও সমাধান সম্পন্ন করা এবং ভবিষ্যতের দিক নির্দেশনা দেয়ার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করা বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম তার কর্মকাণ্ড পরিচালনা শুরু করে ২০১৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর। শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস এবং বাংলাদেশ তৈরিতে বুদ্ধিজীবি ও জ্ঞানী-গুনী লোকদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এবং ভবিষ্যতেও তাদের দায় ও গুরুত্বের কথা মনন ও মাথায় রেখে এই যাত্রা শুরু।

এখন বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম কাজ করে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, সরকারী তিতুমীর কলেজ ও কবি নজরুল কলেজ সহ বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। এছাড়া বিডিএসএফ এর উন্মুক্ত পাবলিক লেকচারগুলোতে ঢাকার প্রায় সবগুলো পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, শিক্ষক সহ বিভিন্ন পেশার মানুষ অংশ নিয়ে আসছেন।

প্রতিষ্ঠার পর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্যবাহী ডাকসু ভবনে এখন পর্যন্ত আশিটি টি পাবলিক লেকচার আয়োজন করেছে বিডিএসএফ। নব্বই মিনিটের পাবলিক লেকচারে একজন বক্তা তার নির্বাচিত বিষয়ের উপর জ্ঞানগর্ব আলোচনার করার জন্য সময় পান সর্বোচ্চ চল্লিশ মিনিট। বক্তার বক্তব্য শেষে উপস্থিত সকলে অংশ নেন। বক্তার বক্তব্য এবং উপস্থিত অংশগ্রহণকারীদের সংযোগ মিলে একটি প্রাণবন্ত পরিবেশে জ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় সাতার কাটেন বিডিএসএফ এর সদস্যরা। বিডিএসএফ এর সদস্যদের আত্মোন্নয়নের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টার প্রতি মঙ্গলবার আয়োজন করছে বুক টক ও আইডিয়া টক। এক সপ্তাহের পঠিত বই এবং সপ্তাহের সেরা আইডিয়াগুলো শেয়ার করা হয় সেখানে। এর ফলে বিডিএসএফ সদস্যরা প্রতিনিয়ত ঋদ্ধ হচ্ছেন।

এছাড়া প্রতিদিনই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির পাশে প্রতিদিন সন্ধ্যায় আড্ডা জমে। আড্ডায় যুক্ত হন বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ বিদ্যার্থী থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, সাংবাদিক, লেখক, গবেষক, শিল্পী বা সাহিত্যিক। সারাদিন পঠিত বিষয় কিংবা মাথার ভেতরে কাজ করতে থাকা কোন প্রশ্ন নিয়ে আড্ডা জমে, তর্ক উঠে, আলোচনা আগায়।

এ বছরের প্রথম দিকে বাংলাদেশ স্টাডি ফোরাম কাজ শুরু করেছে শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে। প্রতি মাসে একটি বিশেষ লেকচারের সাথে সাথে প্রতি সপ্তাহে একটি সাপ্তাহিক আড্ডার আয়োজন করে যাচ্ছে। দুইমাস আগে কাজ শুরু করে সরকারী তিতুমীর কলেজ চ্যাপ্টার ছয়টি সাপ্তাহিক লেকচার আয়োজন করেছে। এছাড়াও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়মিত সাপ্তাহিক ও মাসিক বিভিন্ন প্রোগ্রামাদি অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।