৭ম পাবলিক লেকচার : The Power of Positive Thinking

জাতীয় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও বাংলাদেশ স্টাডি ফোরামের ২য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর বেদনা ও আনন্দের সংমিশ্রণে সরকারি তিতুমীর কলেজে গতকাল অনুষ্ঠিত হয়েছে বাংলাদেশ স্টাডি ফোরামের ৭ম পাবলিক লেকচার। এবারের আলোচনার বিষয় ছিল “The Power of Positive Thinking” এবং আলোচ্য বিষয়ের উপর অসাধারণ আলোচনা উপস্থাপন করেন শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র, তরুণ সংগঠক – হুমায়ূন কবীর।

আলোচনা শেষে বক্তা ও অংশগ্রহণকারীদের হাসিমাখা মুখ

আলোচনা শেষে বক্তা ও অংশগ্রহণকারীদের হাস্যোজ্জ্ব মুখ

শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণ, শ্রদ্ধা নিবেদন, শোক প্রকাশ ও তাঁদের স্বপ্নের বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকারের মাধ্যমে শুরু হয় মূল আলোচনা। শীতের হিমেল হাওয়ার সকল প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে প্রধান আলোচক শুরু করেন তার অসাধারণ আলোচনা । বক্তা গল্প বলার ছকে ও যথাযথ উদাহরণের মাধ্যমে খুব সহজেই সবাইকে নিজের সাথে যুক্ত করেছেন এবং পজিটিভ চিন্তার পজিটিভ দিক সর্ম্পকে আলোকপাত করেছেন।

বক্তা -হুমায়ূন কবীর

বক্তা -হুমায়ূন কবীর

আলোচনার শুরুতেই বক্তা Power, Positive ও Thinking  শব্দ তিনটি বিশ্লেষণ করেন। মানুষকে প্রভাবিত করার ক্ষমতাকেই তিনি Power বলে অভিহিত করেছেন । তিনি আরও বলেছেন যে পৃথিবীতে পজিটিভ ব্লাড গ্রুপই বেশি এবং প্রকৃতিও Positive এর প্রাধান্য স্বীকার করে। বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে Positive ও Negative  ধারণার পার্থক্য বুঝাতে গিয়ে তিনি বলেছেন যে যদিও আমরা পজিটিভ ও নেগেটিভ চার্জ  কে Balanced মনে করি, কিন্তু প্রকৃত পক্ষে কিছু পরীক্ষায় দেখা গেছে Positive চার্জ এর সংখ্যা নেগেটিভ চার্জ  এর সংখ্যা থেকে বেশি । Thinking এর সাথে তিনি মনের গভীর সম্পর্কের কথা বলেছেন। বলেছেন, পজিটিভ থিংকিং পজিটিভ Attitude তৈরি করে । তাছাড়া নিজের প্রতি বিশ্বাস ও আস্থা রাখার প্রতি তিনি গুরুত্ব দিয়েছেন।

মনোযোগ দিয়ে বক্তব্য শ্রবণ

মনোযোগ দিয়ে বক্তব্য শ্রবণ

হতাশায় নিমজ্জিতদের প্রতি বলেছেন, যার কিছু নেই তারও রয়েছে এক মহা মূল্যবান সম্পদ। যার নাম ব্রেইন। একটি ব্রেইন প্রায় ১০ হাজার সুপার কম্পিউটারের সমান। অর্থাৎ একটি ব্রেইনের দাম প্রায় ১০ বিলিয়ন ডলার। সুতরাং যার কিছুই নেই, সেও ১০ বিলিয়ন ডলার মূল্যের সম্পদের মালিক। তিনি আরও বলেছেন, একটি সাধারণ ব্রেইনে পৃথিবীর সব জ্ঞান রাখলেও তার ৫% ভরাট হবে না।

বক্তা  বলেছেন, একজন মানুষের কিছু না থাকলেও, তাঁর সৃষ্টিকর্তা তার সাথে আছেন। সর্বদা সৃষ্টিকর্তা তাকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন । কেউ এ বিশ্বাস নিয়ে এগিয়ে গেলে তার সাফল্য আসবেই।

আলোচনার শেষ দিকে সবাইকে পজিটিভ চিন্তা করার আহ্ববান জানিয়ে বক্তা তার আলোচনা শেষ করেন।

সমানী বক্তব্য -সাবিদিন ইব্রাহিম

সমানী বক্তব্য -সাবিদিন ইব্রাহিম

এরপর সকলে তাদের নিজ নিজ মতামত প্রদান করেন এবং বক্তার কাছে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন রাখেন। সভার শেষ দিকে সাবিদিন ইব্রাহিমের সমাপনী বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শেষ হয়। তিনি তার সমাপণী আলোচনায় BDSF এর কার্যক্রম, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা ও বাংলাদেশ নিয়ে BDSF এর  সপ্নের কথা উপস্থাপন করেন ।

 

15492461_1900346376851825_8096792298697462241_n

Related Posts

About The Author

Add Comment