প্যান্ডোরার বাক্স: যেখান থেকে দুঃখ হলো শুরু

আপনার যাবতীয় দুঃখের জন্য কে দায়ী! অবাক হচ্ছেন? ভাবছেন আমার দুঃখের জন্য আর কে  দায়ী হবে! আমি আর বিধাতা ছাড়া।  না, বরং আপনি আপনার দুঃখ গুলোর দায়ভার অনায়াসে প্যান্ডোরার কাধে চাপিয়ে দিতে পারেন।  সেই কিন্তু দায়ী আপনার ব্যক্তিগত যতসব দু:খের জন্য।

পৃথিবীর আদিতে দেবতারা যখন মানুষ বানালো শুরু করলো তখন শুধু  পুরুষ তৈরি করেছিল।  মানুষ তখন ছিল খুব অসহায়।  মানুষ তখনও আগুনের ব্যবহার জানতো না।  দেবতা প্রমিথিউস প্রথমে আগুন চুরি করে এনে মানুষকে আগুনের ব্যবহার শিখায়।  এতে দেবতা জিউস যায় রেগে। রেগে গিয়ে  তৈরি করে নারী যাতে মানুষকে  হেনস্থা করা যায়! নারীকে তখন থেকেই সব নষ্টামির মূল হিসেবে দেখা শুরু হয়েছে।

দেবতাদের কামার হেফাইস্তাসকে জিউস আদেশ করলো অনন্য সুন্দরী নারী তৈরি করতে, তাকে সব ভালো গুণ দিয়ে গড়ে তোলা হলো।  আফ্রোদিতি তাকে দিলো রুপ, এথেনা পোশাক, অ্যাপেলো দিলো সুর, আর হামিস দিলো ভাষা।  দেবতারা তাকে ভালো ভালো গুন দিয়ে পরিপূর্ণ করে তুললো।

দেবতাদের বার্তাবাহক হামিস জিউস এর আদেশে পৃথিবীতে নিয়ে আসলো প্যান্ডোরাকে এবং সাথে করে নিয়ে আসলো একটা বাক্স।  প্রমিথিউস  একটা কাজে বাহিরে গিয়েছিল, তাই  হামির্স বাক্স এনে  দেয় তার ভাই এপিমিথিউকে।  এপিমিথিউকে প্রমিথিউস বলেছিল যদি জিউস কোন উপহার দেয় যেন সে যেন গ্রহণ না করে তা ভালো উপহার হলেও।  প্রমিথিউস এর ভাই  ছিল বোকা সে প্রথমে কাজ করে পরে ভাবে।  সে প্যান্ডোরাকে গ্রহন করে সাথে একটা বাক্সও।  প্যান্ডোরাকে সে গৃহে নিয়ে আসে সাথে করে সেই বাক্সটিও আনে।

প্যান্ডোরাকে বারবার নিষেধ করা হয়েছিল সে যাতে বাক্সটি না খুলে।  কিন্তু কয়েকদিন পর সে তার নারীসুলভ সহজাত তাড়না উৎসাহ চেপে রাখতে পারে না।  সে বাক্স খুলে ফেলে! আর তখন থেকেই হোমো সেপিয়েন্স দের দুঃখের দিন হয় শুরু!

বাক্স খোলার সাথে সাথে চিৎকার করে ধীরে ধীরে মানুষের সব খারাপ প্রবৃত্তি গুলো একে একে বের হয়ে আসতে থাকে দুঃখ, রাগ, ঘৃনা, শোক, হিংসা প্রবেশ করে পৃথিবীতে আর অন্যসব নিষ্ঠুর বিষয় যা অন্তরকে বিষিয়ে তুলে আত্নাকে কলুষিত করে।

প্যান্ডোরা এরপর তাড়াতাড়ি করে অবশ্য বাক্সটি  বন্ধ করে ফেলতে চায় কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে মানবজাতির সব সুখ চিরতরে চলে গেছে।  প্যান্ডোরার বাক্স খোলার পর থেকেই মানুষের কঠিন দিনের হলো শুরু, এরপর থেকেই মানুষকে কঠিন  পরিশ্রম করে জীবিকা নিবাহ করতে হয়।   এরপর থেকেই মানুষকে রোগ তাপ শীত ব্যাধি পীড়া দেয়।  মরন তার হিম শীতল হাত মানুষষের উপর ভুলিয়ে দেয়।

সেই সময় বাক্স থেকে শুধু  একটা ভালো জিনিস বের হয়ে এসেছিল।  আর তা হচ্ছে ‘আশা ‘ দুঃখের সময় সান্ত্বনা দেওয়ার জন্য  যেটা থেকে যায় সেটা হলো ‘আশা’ উদ্দীপনা।  এই একটা ভালো গুণই বের হয়ে আসে প্যান্ডোরার বাক্স থেকে।  প্যান্ডোরার বাক্স খোলা মানে, না জেনেই কোন কাজ  শুরু করা পরে যেটা অনেক সমস্যার তৈরি করে।  প্যান্ডোরার বাক্স শব্দযুগল শিল্প, সাহিত্য, রাজনীতিসহ বিভিন্নক্ষেত্রে বহুল ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

 

পড়তে পারেন:

১. The myths of Greece and Rome, Author: David Adams Leming

২. Mythology by Edith Hamilton

Related Posts

About The Author

Add Comment